শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০২ পূর্বাহ্ন

চোখের যত্নে যা যা করবেন

 ডেস্ক রিপোর্ট মানুষের দেহে চোখ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ। চোখের যতেœর ব্যাপারে অনেকেই সচেতন না। ফলে অল্প বয়সেই অনেকের চশমার কাঁচে দেখতে হয় দুনিয়া। এর মত বিড়ম্বনা আর দ্বিতীয়টি যেন হয় না। আপনার এই ছোট গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গটির যতেœর ব্যাপারে কয়েকটি টিপস যা চোখের আয়ু বাড়াতে সাহায্য করবে এবং চোখ রাখবে সুরক্ষিত।

স্বাস্থ্যকর ও সুষম খাবার খান : ভেজালের দুনিয়ায় আমরা যত সমস্যার সম্মুখীন হই তার অর্ধেকের বেশির জন্য দায়ি খাবার। খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তন আমাদের অনেক রোগ মুক্তির পাথেয়। চোখের যতেœও খাবারের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। রোজকার খাদ্যতালিকায় প্রচুর ফল-মূল, শাক-সবজি বিশেষ করে হলুদ এবং সবুজ শাকসবজি অন্তর্ভুক্ত করা উচিত। পাশাপাশি ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ মাছ খেলে আপনার চোখ সুস্থ থাকবে।

স্বাস্থ্যকর শারীরিক ওজনের দিকে মনোযোগ দিন : অতিরিক্ত ওজন বা স্থূলতা ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়। ডায়াবেটিস থাকা মানে আপনার ডায়াবেটিক রেটিনোপ্যাথি বা গ্লুকোমা হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে। তাই ওজন যতটা সম্ভব নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন।

নিয়মিত ব্যায়ামে সময় দিন : ব্যায়াম ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ এবং উচ্চ কোলেস্টেরল প্রতিরোধ বা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এই রোগগুলোর কারণে চোখ বা দৃষ্টির সমস্যা হতে পারে। তাই আপনি যদি নিয়মিত ব্যায়াম করেন তাহলে চোখ এবং দৃষ্টির সমস্যা হওয়ার ঝুঁকি কমাতে পারেন।

কড়া রোদে সানগ্লাস ব্যবহার করুন : সূর্যের এক্সপোজার আপনার চোখের ক্ষতি করতে পারে। সেইসাথে চোখে ছানি এবং বয়স-সম্পর্কিত ম্যাকুলার অবক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়াতে পারে। তাই কড়া রোদে বাইরে গেলে সানগ্লাস ব্যবহার করে আপনার চোখকে সুরক্ষিত করুন। সানগ্লাস টঠ-অ এবং টঠ-ই উভয় বিকিরণকে ৯৯ থেকে ১০০ শতাংশ পর্যন্ত অবরুদ্ধ করতে পারে।

ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করার সময় চোখে সুরক্ষা ব্যবহার করুন : চোখের আঘাত প্রতিরোধ করতে খেলাধুলা, কারখানার কাজ, নির্মাণ কাজ এবং বাড়িতে মেরামত কাজ করার সময় চোখের সুরক্ষায় কোনো কিছু ব্যবহার করুন। এতে আপনার চোখ দুর্ঘটনা থেকে সুরক্ষিত থাকবে।

ধূমপান থেকে বিরত থাকুন : ধূমপান বয়স-সম্পর্কিত চোখের রোগ যেমন ম্যাকুলার ডিজেনারেশন এবং ছানি হওয়ার ঝুঁকি বাড়ায়। পাশাপাশি অপটিক স্নায়ুর ক্ষতি করতে পারে। তাই যথাসম্ভব ধূমপান এড়িয়ে চলুন।

পারিবারিক ইতিহাস জানুন : চোখের কিছু রোগ উত্তরাধিকারসূত্রে আসে। তাই আপনার পরিবারের কারো চোখের সমস্যা আছে কিনা তা খুঁজে বের করা গুরুত্বপূর্ণ। এর ফলে আপনি সহযেই বুঝতে পারবেন যে, আপনার চোখের রোগ হওয়ার ঝুঁকি কতটুকু রয়েছে।

চোখকে বিশ্রাম দিন : আপনি যদি কম্পিউটার ব্যবহার করে অনেক সময় ব্যয় করেন তাহলে হয়তো আপনি চোখের পলক ফেলতে ভুলে যেতে পারেন। এর ফলে আপনার চোখ ক্লান্ত হয়ে যেতে পারে। তাই চোখের চাপ কমাতে ২০-২০-২০ নিয়মটি মেনে চলুন। অর্থাৎ প্রতি ২০ মিনিটে ২০ সেকেন্ডের জন্য আপনার সামনে প্রায় ২০ ফুট দূরে তাকান।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.