বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৪২ অপরাহ্ন

প্যারাগুয়ের স্বপ্ন চূর্ণ করে ব্রাজিলের গোল উৎসব

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  আগেই কাতার বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত করে ফেলেছে ব্রাজিল। এখন শুধু তাদের আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচ। তবুও প্রতিপক্ষকে কোনোভাবে ছেড়ে কথা বলছে না তিতের শিষ্যরা। গত মঙ্গলবার রাতে নিজেদের মাঠ স্টাডিও মিনেইরোয় প্যারাগুয়ের জালে রীতিমত গোল উৎসব করেছে ফিলিপ কৌতিনহো, রাফিনহা, রদ্রিগোরা। শেষ পর্যন্ত ৪-০ গোলের ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে সেলেসাওরা।

ব্রাজিলের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে এবারের কাতার বিশ্বকাপে খেলার স্বপ্ন চূর্ণ হয়ে গেছে প্যারাগুয়ের। ১৬ ম্যাচ শেষে ১০ দলের মধ্যে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে ৯ নম্বরে রয়েছে তারা।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে তাদের বাকি আছে আর কেবল ২টি ম্যাচ। এই দুটি ম্যাচ জিতলেও চতুর্থ কিংবা পঞ্চম স্থানে যাওয়া তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। সুতরাং, আনুষ্ঠানিকভাবেই বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে তাদের।

বেলো হরাইজন্তের স্টাডিও মিনেইরোয় ৪-০ ব্যবধানের জয়ে ব্রাজিলের হয়ে গোল করেছেন রাফিনহা, ফিলিপ কৌতিনহো, অ্যান্তোনি এবং রদ্রিগো। রিয়াল মাদ্রিদের স্ট্রাইকার রদ্রিগোর এটা ব্রাজিল জার্সিতে প্রথম আন্তর্জাতিক গোল।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব যেহেতু আগেই উৎরে গেছে ব্রাজিল, সে কারণে এই আন্তর্জাতিক উইন্ডোতে দলে বেশ কিছু পরীক্ষা করার সুযোগ নিচ্ছেন কোচ তিতে। ইনজুরির কারণে মূল তারকা নেইমার নেই দলে। প্যারাগুয়ের বিরুদ্ধে একগুচ্ছ পরিবর্তন ঘটিয়েও জয়ের ধারা অব্যাহত রাখল ব্রাজিল।

ম্যাচের মাত্র ৯৩ সেকেন্ডেই ব্রাজিলের হয়ে লিডস ইউনাইটেড উইঙ্গার রাফিনহা বলে জাল জড়িয়ে দেন। তবে দীর্ঘ পর্যবেক্ষণের পর ভিএআর সেই গোল বাতিল করে দেয়; কিন্তু ২৮ মিনিটে পুনরায় রাফিনহাই গোল করে ব্রাজিল লিড এনে দেন।

ট্রেডমার্ক ভঙ্গিমায় মার্কুইনহোসের লং পাস থেকে বল চেস্ট ডাউন করে দুই প্যারাগুয়ে ডিফেন্ডারের বিরুদ্ধে ড্রিবল করে বল জালে জড়ান তিনি। দ্বিতীয়ার্ধেও তার একটি গোল পাওয়ার কথা। তবে প্যারাগুয়ে গোলরক্ষক পরাস্ত হলেও, তার শট পোস্টে লেগে ফিরে আসে।

সম্প্রতি অ্যাস্টন ভিলায় যোগ দিয়ে নিজের ক্যারিয়ারে পুনরায় প্রাণসঞ্চার করেছেন ফিলিপ কৌতিনহো। মাঝমাঠে নিজের পছন্দের জায়গায় খেলেই সেই পুরনো কৌতিনহোকে দেখা গেল। গোলও করলেন নিজের চেনা ছন্দে।

৬২ মিনিটে প্রায় ৩০ মিটার দূর থেকে বাঁক খাওয়ানো কৌতিনহোর শটে বল প্যারাগুয়ে গোলের একেবারে ওপরের কর্ণারে জড়িয়ে যায়। ম্যাচের শেষের দিকে পরিবর্তিত হিসেবে মাঠে নামা অ্যান্টনি ব্রাজিলের হয়ে লিড ৩-০ করে দেন। এর দুই মিনিট পরই সহজ ট্যাপ ইনে, নিজের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের প্রথম গোলটি পান রিয়াল মাদ্রিদের রদ্রিগো।

ব্রাজিলের হয়ে ম্যাথিয়াস কুনিয়া, ভিনিসিয়ুস জুনিয়ার এবং লুকাস প্যাকুয়েতা গোল করার সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে পারেননি। এই ম্যাচে এডারসন, ফ্যাবিনহো, অ্যালেক্স টেলেক্সরা পরিবর্তিত ব্রাজিল দলের প্রথম একাদশে সুযোগ পান।

নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের নতুন মিডফিল্ডার ব্রুনো গুইমারায়েস দ্বিতীয়ার্ধে ব্রাজিলের হয়ে পরিবর্তিত হিসাবে মাঠে নামেন। এই জয়ের ফলে শীর্ষে নিজেদের দখল মজবুত করল ব্রাজিল।

১৫ ম্যাচের মধ্যে তারা ১২টি ম্যাচে জয় এবং তিনটি ম্যাচে ড্র করে, এবারের লাতিন আমেরিকার বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে এখনও অপরাজিত। সব মিলিয়ে ১৫ ম্যাচে ৩৯ পয়েন্ট ব্রাজিলের। ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে তাদের পরেই রয়েছে আর্জেন্টিনা।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.