শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০:৪২ অপরাহ্ন

খবরের শিরোনাম:
ফেব্রুয়ারির পরিবর্তে ডিসেম্বরে এসএসসি পরীক্ষা থাইল্যান্ডে আন্তর্জাতিক যুব সম্মেলনে যাচ্ছেন যুব নেতা হোসাইন জীবিতদের মৃত দেখিয়ে ভাতা থেকে বাদ দিলেন চেয়ারম্যান অবৈধভাবে ব্যালটে সিল মারার অভিযোগে, প্রিজাইডিং অফিসারসহ গ্রেফতার ০২ নবীগঞ্জের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অভিযানে ইয়াবা ও গাঁজাসহ ২ জন গ্রেপ্তার। আজ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বুদ্ধ পূর্ণিমা আজমিরীগঞ্জে ৩৯ লিটার চোলাই মদসহ বিক্রেতা সুনিল গ্রেফতার কলকাতার একটি হোটেল পড়ে ছিলো এমপি আনারের লাশ বাহুবল উপজেলা আনেয়ার হোসেন চেয়ারম্যান নির্বাচিত কামরুল ইসলাম ও রিতা ভাইস চেয়ারম্যান নবীগঞ্জে আওয়ামিলীগের হেভিওয়েটদের হারিয়ে বিজয়ী বিএনপির মুজিবুর রহমান

বান্দরবানে শ্বশুরবাড়িতে জামাইকে গুলি করে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বান্দরবানের লামা উপজেলায় শ্বশুরবাড়িতে মংক্যচিং মারমা (৩৫) নামে এক জেএসএসকর্মীকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা।

গতকাল সোমবার (৩ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১টার দিকে উপজেলার রূপসীপাড়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড অংহ্লাপাড়ায় আথুইমং মারমার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মংক্যচিং মারমা (৩৫) রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলীর বাঙ্গালখালী এলাকার বাসিন্দা। তিনি রাঙ্গামাটির রাজস্থলী উপজেলার বাঙ্গালখালী এলাকায় জেএসএসের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। তাদের নিজস্ব দ্বন্দ্বের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

এ ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন লামা থানা ওসি শহীদুল ইসলাম চৌধুরী। তিনি বলেন, খবর পাওয়ার পরই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

নিহত মংক্যচিং মারমার শ্যালক অংসিং মারমা (২৮) বলেন, তার বড় বোনের স্বামী মংক্যচিং মারমা গত সোমবার রাত ৭টায় তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। রাত সাড়ে ১২টার দিকে ছয় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী বাড়ি ঘিরে ফেলে। তারা ঘরের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বোন জামাইকে গুলি করে।

সন্ত্রাসীরা তিন রাউন্ড গুলি করে ও কুপিয়ে তার মৃত্যু নিশ্চিত করে চলে যায়। সন্ত্রাসীদের হাতে আগ্নেয়াস্ত্র ও রশি ছিল। তিনি আরও বলেন, ঘটনার পর থেকে আমার বোন ম্রাবোচিং মারমা পাগলের মতো হয়ে গেছে। তিনি বারবার মূর্ছা যাচ্ছেন।

লামা উপজেলা জেএসএস সভাপতি অংহ্লাপাড়ার বাসিন্দা অংগ্য মারমা বলেন, রাত ২টায় আমি ঘটনাটি জানতে পারি। খামারবাড়িটি আমাদের পাড়া থেকে ৫০০ গজ পূর্ব দিকে। নিহত মংক্যচিং মারমা তার ভাগ্নে জামাই। আঞ্চলিক রাজনীতির দ্বন্দ্বে এ ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার সীতারঞ্জন বড়ুয়া বলেন, ঘটনাটি জানতে পেরে ইউপি চেয়ারম্যান ও লামা থানাকে অবহিত করি। তবে কী কারণে এ হত্যার ঘটনা ঘটেছে আমরা জানি না।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.