সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০৫:১৭ অপরাহ্ন

শায়েস্তাগঞ্জে শিক্ষিকা সুপ্তা রানী দাসের মৃত্যুর ঘটনায় হত্যা মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ শায়েস্তাগঞ্জে সহকারী স্কুল শিক্ষিকা সুপ্তা রানী দাসের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার নিহত শিক্ষিকার ভাই পুলক দাস বাদী হয়ে সিএনজি অটোরিকশা চালক চুনারুঘাট উপজেলার বদর গাজী গ্রামের বাসিন্দা মৃত আব্দুল হাসিমের পুত্র মতিন মিয়াসহ অজ্ঞাতনামাদের আসামী করে শায়েস্তাগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। নিহত সুপ্তা দাস হবিগঞ্জ সদর উপজেলার মাহমুদপুর গ্রামের পবিত্র রঞ্জন দাসের কন্যা। তিনি নিশাপট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা হিসাবে কর্মরত ছিলেন।মামলা সুত্রে জানা যায়, গত ১১ আগস্ট সকাল ৯ টার দিকে প্রতিদিনকার মত তিনি বিদ্যালয়ে যাওয়ার জন্য শায়েস্তাগঞ্জ শহরের পোস্ট অফিস সংলগ্ন সিএনজি অটোরিকশা স্ট্যান্ডে আসেন। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী আগে থেকে অবস্থানরত সিএনজি অটো রিক্সা চালক মতিন মিয়া তার সহযোগীদের নিয়ে সেখানে অবস্থান করছিলেন। ওই শিক্ষিকা সেখানে আসা মাত্র চালক মতিন মিয়া তাকে ডেকে তুলেন। ওই স্কুলটির কাছাকাছি গাড়িটি যাওয়ার পর শিক্ষিকা সুপ্তাতাকে নামিয়ে দিতে বলেন। কিন্তু তাকে সেখানে নামিয়ে না দিয়ে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে রঘুনন্দন পাহাড়ের দিকে নিয়ে যেতে থাকে চালক ও তার সহযোগীরা। এ সময় সুপ্তা ধস্তাধস্তি করলে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে চালক ও তার সহযোগিরা মারাত্মক আঘাত করে। এক পর্যায়ে ওই শিক্ষিকা সংজ্ঞাহীন হয়ে গেলে মারা গেছেন মনে করে বিষয়টিকে দুর্ঘটনা বলে চালিয়ে দিতে চলন্ত গাড়ি থেকে চালক ও তার সহযোগিরা তাকে ফেলে দিয়ে যায়। এ সময় সুপ্তা রানী দাস মারাত্মক আহত হন। পথচারীদের সাহায্যে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ থানার (ওসি) মোহাম্মদ নাজমুল হক কামাল জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীকে ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.