বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৮ অপরাহ্ন

শায়েস্তাগঞ্জে শীতকালীন বিভিন্নধরনের সবজি চাষে ব্যস্ত কৃষকরা

শায়েস্তাগঞ্জ প্রতিনিধি ॥শায়েস্তাগঞ্জে শীতকালীন বিভিন্নধরনের সবজি চাষে ব্যস্ত কৃষকরা। শায়েস্তাগঞ্জ ৩টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার আশপাশের এলাকার চাষীরা শীতকালীন সবজি চাষে ঝুকে পড়েছে। সবজি চাষ করে শায়েস্তাগঞ্জের ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকরা ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়েছে। শায়েস্তাগঞ্জের পার্শ্ববর্তী এলাকা পাহাড়ী অঞ্চল ও উচু জমি হওয়ায় সবজি চাষে কৃষকরা বেছে নিয়েছে ওই জমিগুলো। নুরপুর ইউনিয়নের পুরাসুন্দা, সুতাং, অলিপুর, বাছিরগঞ্জ , নছরতপুর ও শায়েস্তাগঞ্জের কদমতলী, বড়চর, কুতুবের চক, কাজীরগাঁও, নিশাপট, মরড়া, কলিমনগর, বিরামচরসহ প্রত্যেকটি গ্রামে শীতকালীন সবজি চাষে কৃষকরা ব্যস্ত রয়েছেন। ইতি মধ্যেই শীতকালীন নতুন নতুন সবজি বাজাওে উঠতে শুরু করেছে। শীতকালীন সবজি বাজারগুলো বিক্রি হচ্ছে চড়া মূল্যে। নতুন সবজি ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতা বাইরে।সরজমিনে শায়েস্তাগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে কৃষকদের সাধে অলাপ হয়। কৃষক রওশন আলী জানাই গতবারের চেয়ে এই বছর শীতকালীন সবজির ভাল ফলন হচ্ছে। বৃষ্টি না হলে সবজি আরো ভাল ফলন হবে বলে কৃষকরা মনে করেন। যে হারে সার ও কীতনাশকের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে এতে কতটুকু সবজি চাষ করে লাভ করতে পারব তা জানা নেই। কৃষক চেরাগ আলী জানান, বাঁধা কপি, সীম, ফুলকপি, আলু, টমোটো কয়েক ধরনের সবজি চাষ করেছি। সবজির ভাল ফলন হয়েছে। প্রতিদিনই বাজারে কিছু না কিছু সবজি বিক্রি করছি। সার ও ঔষুধের দামের তুলনায় সবাজির দাম আরদদারদের কাছ থেকে তেমন একটা পাচ্ছি না। তারপরও আশা করছি ঋণের টাকা শোধ করতে পারবো। শীতকালীন সবজি সীম ৯০টাকা প্রতিকেজি, বেগুন প্রতিকেজি ৩২ টাকা, নতুন আলু ৩০টাকা, পটল ৩০টাকা, ফুলকপি ৪০ টাকা, কাচা মরিচ ৬০টাকা, মূলা ২০ টাকা কেজি। এদিকে বিভিন্ন ব্যাংক থেকে বিকার যুবকরা ঋণ নিয়ে সবজি চাষ করে লাভবান হচ্ছেন।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.