রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৩:১০ পূর্বাহ্ন

সুজাতপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী পাবেল খান চৌধুরী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ২৩ ডিসেম্বর ৪র্থ ধাপে অনুষ্ঠিত হবে বানিয়াচং উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। এ নির্বাচনকে ঘিরে ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে জমজমাট প্রচার-প্রচারণা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে শুরু করে যে যেভাবে পারছেন প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তাদের মাঝে অন্যতম চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেন, আবু হাসিব খান চৌধুরী পাবেল। যিনি বানিয়াচং উপজেলার ১২নং সুজাতপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। তিনি ইতোমধ্যেই সভা সমাবেশ, সামাজিক, রাজনৈতিক ও সেবামূলক কর্মকান্ডের মাধ্যমে ইউনিয়নবাসীকে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তার প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি জানিয়েছেন। যার ফলে সুজাতপুর ইউনিয়নে আলোচিত এক নাম পাবেল। জানা গেছে, সুজাতপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মাঝে এগিয়ে রয়েছেন তিনি। তার নৌকা প্রতীক পাওয়া নিয়ে শুরু হয়েছে নানা গুঞ্জন। তিনি বিভিন্ন সময় ওই ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে উন্নয়ন কাজ করার চেষ্টা করেছেন বলে উল্লেখ করেন। ইউনিয়নের সাধারণ জনগন বলেন, আবু হাসিব খান চৌধুরী পাবেল একজন সাংগঠনিক মানুষ। ছাত্রজীবন থেকেই তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জননেত্রী শেখ হাসিনার আদর্শের অনুসারী। তার জন্য আমরা কাজ করব। তিনি নির্বাচিত হলে খেটে খাওয়া মেহনতি মানুষের পাশে থাকবেন এবং এলাকার আরও উন্নয়ন হবে বলে আমরা মনে করি। পাবেল একজন তরুণ ছাত্রনেতা। রাজনৈতিক জীবনে তিনি সুজাতপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সদস্য, হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক পাঠাগার সম্পাদক ও সহ-সভাপতি ছিলেন। এ ছাড়াও তিনি ক্রীড়াপ্রেমি মানুষও বটে। তিনি শতমুখা অগ্রণী ক্রীড়া চক্রের সভাপতি এবং শতমুখা যুব জাগরণ কাবেরও সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। আবু হাসিব খান চৌধুরী পাভেলের ব্যবসায়ী পরিচয় ছাড়াও আরেকটি অন্যতম পরিচয় হচ্ছে পেশায় তিনি একজন পেশাদার সাংবাদিক। যার মাধ্যমে গরীব, দুঃখী ও অসহায় মানুষের সেবায় নিয়োজিত আছেন দীর্ঘদিন ধরে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তিনি সুজাত ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা চষে বেড়াচ্ছেন ও বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নম‚লক কর্মকাÐ সাধারণ মানুষের মাঝে তুলে ধরছেন। এছাড়াও জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া প্রতিশ্রæতি ‘গ্রাম হবে শহর’ স্বপ্নপ‚রণে কাজ করছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন গ্রামকে শহরে পরিণত করতে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে একজন দক্ষ সংগঠক, নিস্বার্থবান সমাজহিতৈষী প্রার্থী হিসাবে কাজ করে যাচ্ছেন। চেয়ারম্যান পদে আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশায় প্রতিনিয়ত সামাজিক অনুষ্ঠান, মতবিনিময় সভা, গণসংযোগ ও বিভিন্ন ধরনের শোডাউন চালিয়ে যাচ্ছেন। করোনাকালে অসহায় মানুষকে ত্রাণ বিতরণ, মসজিদ, মন্দির, কাবসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে সহায়তা করেছেন সাধ্য অনুযায়ী। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আবু হাসিব খান চৌধুরী পাবেল বলেন, আমি সুজাতপুর ইউনিয়নবাসীর মানুষের পাশে থেকে সেবা করতে চাই। সেই ধারাবাহিকতায় জনগণের চাহিদা মোতাবেক প্রার্থী হতে চাই। কারণ এলাকার প্রত্যেক জনগণের সাথে আমার আত্মার সম্পর্ক রয়েছে এবং ছোটবেলা থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির মাধ্যমে সাধারণ মানুষের পাশে থেকে সেবা দিয়ে আসছি। আমি চেয়ারম্যান হলে সুজাতপুরকে একটি মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলব। শালিস-বিচারে স্বচ্ছতা এনে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠাসহ গ্রাম্য আদালত কার্যকর করার চেষ্টা চালিয়ে যাব, সেই সঙ্গে নারী নির্যাতন, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদকমুক্ত ইউনিয়ন গড়ে তুলব। তিনি আরও বলেন, জনগণের মতামতের ভিত্তিতে আমাকে যদি মনোনয়ন দেয়া হয় তাহলে আমি নৌকার মনোনয়ন পাব। জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে মনোনয়ন দেন তাহলে আমি বিপুল ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত হব ইনশাআল্লাহ। ছাত্র জীবন থেকেই তিনি বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন। উল্লেখ্য আবু হাসিব খান চৌধুরী পাবেল (শতমুখা গ্রামের অমুকের পুত্র ও ভাতিজা)। তিনি সকলের নিকট দোয়া ও আর্শীবাদ প্রার্থী।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.