সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:১০ অপরাহ্ন

সুনামগঞ্জ শহরের পাঁচ পয়েন্টে রাজত্ব চলে বাদশার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ পাউরুটি কিংবা অন্য কোনো খাবার, যার হাতে দেখবে সেটাই জোর করে খেয়ে নেবে। সবার বাদশা সে। তাই সাধারণ মানুষ ভালোবাসে নাম দিয়েছে তার বাদশা। তবে বাদশা কোনো মানুষের নয় বরং একটি বানরের নাম। সুনামগঞ্জ পৌরশহরে সকাল হলেই দেখা যায় বাদশা নামে এই বানরটিকে।

সুনামগঞ্জ পৌর শহরের উত্তর আরপিননগর পয়েন্টে গিয়ে শনিবার সকালে দেখা যায়, মরমী কবি দেওয়ান হাসন রাজার বাড়ির সামনে সাহেববাড়ি ঘাট থেকে একাই হেঁটে আসছে একটি বানর। আশপাশে অনেক মানুষ থাকলেও বানরটিকে কেউ কিছুই বলছে না। তবে যেই বানরটিকে বাদশা বলে ডাক দিয়ে পাউরুটি কিংবা অন্য কোনো খাবার দেয় বানরটি সেটা নিয়ে আবার তার গন্তব্য স্থানে চলে যায়।পৌর শহরের স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, পৌর শহরের উত্তর আরপিন নগর পয়েন্ট, জেলরোড পয়েন্ট, উকিলপাড়া পয়েন্ট, কালীবাড়ি পয়েন্ট এবং হোসেন বখত চত্বর পয়েন্ট বানরটি সকাল থেকে দখলে রাখে। একেকদিন বানরটি একেকটি পয়েন্টে অবস্থান করে।প্রথম দিকে বানরটি অন্যের খাবার কেড়ে খেতো। কিন্তু পরে এই পাঁচ পয়েন্টের মানুষ বানরটিকে না মেরে বরং ভালোবেসে খাবার দেয়।

পৌর শহরের উত্তর আরপিননগর এলাকার বাসিন্দা মেহের আহমদ বলেন, প্রতি সপ্তাহে শুক্রবার ও শনিবার বানরটি আমাদের এলাকায় আসে কিন্তু বানরটি কোথা থেকে আসে আমরা জানি না। তবে এই বানরটির কথা পুরো সুনামগঞ্জের মানুষ জানে।

পৌর শহরের হোসেন বখত চত্বর এলাকার বাসিন্দা তম্ময় মিয়া বলেন, একটি বানর প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে, এটা সত্যি খুব চিন্তার বিষয়। কারণ যদি বানরটি কোনো শিশুকে সুযোগ পেয়ে কামড়ে দেয় তাহলে সেটা আতঙ্কের বিষয় হয়ে দাঁড়াবে। তাই কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানাই বানরটির বিষয়ে যেন কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করে।

সুনামগঞ্জ বন বিভাগের কর্মকর্তা অরুণ বরুণ চৌধুরী বলেন, একটি বানর শহরে ঘোরাঘুরি করছে জেনে আমরা সভা করেছি এবং মৌলভীবাজার বন্যপ্রাণি বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বলেছে এই বিষয়ে তাদের কিছু করার নেই। তবে সুনামগঞ্জের সব মানুষের প্রতি আমার অনুরোধ কেউ যেন বানরটিকে বিরক্ত না করে।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.