রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৩:১৮ অপরাহ্ন

১০ বছর পুর্তি উদযাপন করলো কারু বুটিক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কারু মানেই আনন্দ আয়োজন, কারু মানেই উদ্ভাবন, এই মর্ম নিয়েই কারু বুটিকের জন্ম। শুরুটা শখের হলেও স্বপ্ন অনেক বড়। সেই স্বপ্নের সাথে যারা একাত্মতা প্রকাশ করেছেন তাদেরকে নিয়ে শুক্রবার (১২ নভেম্বর) কারু বুটিক দশ বছর পুর্তি উদযাপন করেছে।

নানা আয়োজনে ঢাকার একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে জমকালো আয়োজনের মাধ্যমে সন্ধ্যা ৭ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত এক অনুষ্টানের আয়োজন করা হয়।

পোষাকে দেশীয় ঐতিহ্য ধরে রাখার প্রচেষ্টা ‘ এই স্লোগানে কারু বূটিকের পথচলা। ২০১১ সালের ১১ ই নভেম্বর যাত্রা শুরু করেছিল কারু বুটিকস। বর্তমানে কারু বুটিকের ঢাকাতে নিজস্ব কারখানা রয়েছে, যেখানে ২০ জন শ্রমিক কাজ করছেন, ইতোমধ্যে সিলেটের শাহী ঈদগাহে কারু বুটিকের একটি শোরুম রয়েছে।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই কেক কেটে ১০ বছর পুর্তি অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন নাট্যকার রোজি সিদ্দিকী ও কারু বুটিকের স্বত্ত্বাধিকারী জান্নাতুল ফেরদৌস।

পরে প্রথমবারের মত নিজস্ব পোষাকের ফ্যাশন শো অনুষ্ঠিত হয়, এতে বাহারি রঙের পোশাক পরিদর্শন করা হয়।

এসময় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ সমবায় কার্যালয়ের ডিরেক্টর নুরে জান্নাত, তথ্য মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব ফারহানা রহমান, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুমাইয়া ইসরাত, যমুনা ব্যাংকের ডি এম ডি আব্দুস সালাম, ইউ এস বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রির প্রেসিডেন্ট মো. আব্দুর রাজ্জাক, মডেল অফ ইন্ডাষ্ট্রির লিজেন্ড সাবরিনা জামান রিবা, কারু বুটিক সিলেটের প্রতিনিধি জান্নাত মন।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এনায়েত শিলু, খান সাদমান আল কারিব, জান্নাতুল ইসরা, সাইরাসহ বিভিন্ন গ্রাহক ও বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকসহ নানা পেশার আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ।

কারু বুটিকের স্বত্তাধিকারী জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, কারু বুটিকের নিজস্ব স্বকীয়তা নিয়ে এখন দেশে বিদেশে জনপ্রিয়তা অর্জন করছে। খুব শীঘ্রই আমরা ঢাকাতে শোরুম চালু করব। আমাদের এ পদযাত্রায় পাশে থাকার জন্য সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.