রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০১:৫৭ অপরাহ্ন

২৬শে মার্চ থেকে অনলাইনে মিলবে ট্রেনের টিকেট

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাংলাদেশ রেলওয়ের সার্ভিস প্রোভাইডার পরিবর্তনের কারণে অনলাইনে বিক্রি বন্ধ রয়েছে ট্রেনের টিকিট ।

তবে শুক্রবার (২৫ মার্চ) দিবাগত রাত ১২টা থেকে অনলাইনে সংগ্রহ করা যাবে রেলের টিকিট। তবে অ্যাপে নয়, শুধু এই ওয়েবসাইট (http://www.eticket.railway.gov.bd/) থেকে টিকিট সংগ্রহ করা যাবে। (ওয়েবসাইটটি আজ রাত বারোটার পর চালু হবে)।

জানা গেছে, নতুন ওয়েবসাইট থেকে টিকিট সংগ্রহের জন্য প্রথমেই প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে খুলতে হবে নতুন অ্যাকাউন্ট। অর্থাৎ পুরনো ওয়েবসাইট বা অ্যাপের অ্যাকাউন্টের তথ্য দিয়ে লগ-ইন করা যাবে না নতুন ওয়েবসাইটে।

এই নতুন টিকিটিং সিস্টেম পরিচালনার জন্য পাঁচ বছরের জন্য দায়িত্ব পেয়েছে ‘সহজডটকম’। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, আগের মতোই নতুন এই সিস্টেমেও ৫০ শতাংশ টিকেট অনলাইনে কাটতে পারবেন গ্রাহকরা।

বাংলাদেশ রেলওয়ের সার্ভিস প্রোভাইডার পরিবর্তনের কারণে গত সোমবার (২১ মার্চ) থেকে বন্ধ রয়েছে ট্রেনের অনলাইন টিকিট বিক্রি।

উল্লেখ্য, বাস-লঞ্চ টিকিট বিক্রি করার অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে ১৫ বছর ধরে ব্যবহৃত রেল টিকিটিং সিস্টেমের আদলে একটি সমমানের পদ্ধতি মাত্র ২১ কর্মদিবসে তৈরি করেছে সহজ। উন্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে সহজ কাজটি পেয়েছে। এর আগে টিকিট বিক্রির দায়িত্ব পালন করেছে সিএনএস নামের একটি প্রতিষ্ঠান।

সহজ, সিনেসিস এবং ভিনসেন জেভি যৌথভাবে তৈরি করেছে টিকিটিং সিস্টেম। চলতি বছর ১৫ ফেব্রুয়ারি টিকিটিং সিস্টেম পরিচালনার জন্য পাঁচ বছর মেয়াদী চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় ‘সহজ’র সঙ্গে বাংলাদেশ রেলওয়ের।

চুক্তি অনুযায়ী সহজ, সিনেসিস এবং ভিনসেন জেভি প্রাথমিকভাবে চলমান সিসিএসআরটিএস সিস্টেমটি সচল রাখবে। তবে আগামী ১৮ মাসের মধ্যে সিসিএসআরটিএস সিস্টেমটি বিআরআইটিএস দ্বারা প্রতিস্থাপিত হবে।

বর্তমানে ১০৪টি আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট ৭৭টি স্টেশনে কম্পিউটারের মাধ্যমে ইস্যু করা হচ্ছে। দৈনিক প্রায় ৯০ হাজার ও মাসিক প্রায় ২৭ লাখ যাত্রীর টিকিট কম্পিউটারের মাধ্যমে ইস্যু করা হয়।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.