রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০২:৪১ পূর্বাহ্ন

২ টাকার লেবু ১০ টাকা

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি দুই টাকার লেবু হয়ে যাচ্ছে ১০ টাকা। বাগান থেকে পাইকারি বাজার হয়ে খুচরা বাজার পর্যন্ত আসতে আকার অনুযায়ী প্রতি লেবুতে ৬ থেকে ১০ টাকা বেড়ে যাচ্ছে। শ্রীমঙ্গলে ভোক্তার অভিযানে বেরিয়ে আসে এ চিত্র। মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে চায়ের পরই লেবুর অবস্থান। এখান থেকে প্রচুর লেবু দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করা হয়। শ্রীমঙ্গল ও আশেপাশে প্রায় ২ হাজার ছোট বড় বাগানে লেবু উৎপাদিত হয়।

সোমবার (৪এপ্রিল) মৌলভীবাজার ভোক্তা অধিদফতর অভিযান পরিচালনা করে দেখতে পায় প্রতি হালি লেবু বাগান থেকে ৮ থেকে ১২ টাকায় ক্রয় করে খুচরা বাজারে বিক্রি করা হচ্ছে ৩৫ থেকে ৫০ টাকায় । ভোক্তা অধিদফতরের অভিযান থেকে জানা যায়, কয়েকটা চক্র এখানে লেবু কেনা বেচায় কাজ করছে। মূলত তারাই এ দাম বাড়িয়ে দিচ্ছে। সিন্ডিকেট করে বাগান থেকে লেবু সংগ্রহ করে কিছু ভাসমান ও পাইকারি ব্যবসায়ী ন্যায্য মূল্যে লেবু কিনে ভাউচার ছাড়া অধিক মূল্যে দেশের বিভিন্ন জায়গায় পাইকারি ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করছেন। সেই পাইকারি ব্যবসায়ীরা আবার ভাউচার ছাড়া অধিক মূল্যে যার যার এলাকার খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করছেন। খুচরা ব্যবসায়ীরা সাধারণ জনগণের কাছ থেকে লেবুর আকার অনুযায়ী ৩৫ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি করছেন।

ভোক্তা অধিকার অধিদফতর জানায়, অভিযানের পর নেতৃস্থানীয় লেবু ব্যবসায়ীরা কথা দিয়েছেন আইন মেনে ব্যবসা করবেন। তারা আরো জানান, অভিযানে অতিরিক্ত দামে লেবু বিক্রয় করা, ক্রয় ও বিক্রয় ভাউচার সংগ্রহ না করা, দৃশ্যমান স্থানে মূল্য তালিকা প্রদর্শন করা, মেয়াদ উত্তীর্ণ কীটনাশক বিক্রয় করাসহ বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে শ্রীমঙ্গলের নতুনবাজারে অবস্থিত মেসার্স আফরোজা বাণিজ্যনালয়কে ১০ হাজার টাকা, পান্না লাল কৃষি বিতানকে ৪ হাজার টাকা, মাসুম খান ফিড স্টোরকে ২ হাজার টাকা, সুমা ফার্মেসিকে ২ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ ও তা আদায় করা হয়।

অভিযানে মোট ৪টি প্রতিষ্ঠানকে সর্বমোট ১৮ হাজার টাকা জরিমানা ও তা আদায় করা হয়। এছাড়াও অভিযানের একপর্যায়ে লেবু ও তরমুজের পাইকারি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনায় বসা হয়। আলোচনায় জাতীয় ভোক্তা অধিকারে সহকারী পরিচালক ব্যবসায়ীদের আইন মেনে ব্যবসায় পরিচালনা করা জন্য অনুরোধ জানান। ব্যবসায়ীরা কথা দেন ন্যায্য দামে লেবু ও তরমুজ বিক্রয় করবেন।

পবিত্র রমজান উপলক্ষে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী ও রমজানের গুরুত্বপূর্ণ খাদ্য পণ্য লেবু ন্যায্য দামে প্রাপ্তি নিশ্চত করার লক্ষে কাজ করছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে থাকা জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। সেই লক্ষে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আল-আমিন এর নেতৃত্বে র‌্যাব-৯ ফোর্সের সহযোগিতায় মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার নতুনবাজার, সোনার বাংলা রোডসহ বিভিন্ন জায়গায় নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী, লেবুর ও তরমুজের পাইকারী ও খুচরা ব্যবসায়ীদের প্রতিষ্ঠান, ফার্মেসিসহ মনিটরিং ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.