শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০২:৪৯ পূর্বাহ্ন

খবরের শিরোনাম:
ফেব্রুয়ারির পরিবর্তে ডিসেম্বরে এসএসসি পরীক্ষা থাইল্যান্ডে আন্তর্জাতিক যুব সম্মেলনে যাচ্ছেন যুব নেতা হোসাইন জীবিতদের মৃত দেখিয়ে ভাতা থেকে বাদ দিলেন চেয়ারম্যান অবৈধভাবে ব্যালটে সিল মারার অভিযোগে, প্রিজাইডিং অফিসারসহ গ্রেফতার ০২ নবীগঞ্জের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অভিযানে ইয়াবা ও গাঁজাসহ ২ জন গ্রেপ্তার। আজ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বুদ্ধ পূর্ণিমা আজমিরীগঞ্জে ৩৯ লিটার চোলাই মদসহ বিক্রেতা সুনিল গ্রেফতার কলকাতার একটি হোটেল পড়ে ছিলো এমপি আনারের লাশ বাহুবল উপজেলা আনেয়ার হোসেন চেয়ারম্যান নির্বাচিত কামরুল ইসলাম ও রিতা ভাইস চেয়ারম্যান নবীগঞ্জে আওয়ামিলীগের হেভিওয়েটদের হারিয়ে বিজয়ী বিএনপির মুজিবুর রহমান

বাহুবল বেগুণী বাঁধাকপি নজর কেড়েছে সবার

দেলোয়ার ফারুক তালুকদারঃ সবুজ পাতার ভেতর বেগুনী রং। দূর থেকে দেখলে মনে হবে ফুল ফুটে আছে। তবে এটা ফুল নয়। শীতকালীন সবজি বাঁধাকপির ক্ষেত। মনোরম এই দৃশ্য চোখে পড়বে বাহুবল উপজেলার দ্বিমুড়া গ্রামে। দ্বিমুড়া গ্রামের কৃষক মো. দিদার হোসেন তার জমিতে ভিন্ন কিছু চাষ করার ভাবনা থেকে রঙিন বাঁধাকপি চাষ করেছেন। উপজেলায় প্রথমবার প্রায় ৮ শতক জমিতে ৫০০টি চারা রোপণ করেন তিনি। ভেতরে বেগুনি ও স্বাদে কিছুটা মিষ্টি হওয়ায় এর চাহিদাও বেশি। এই বেগুনি বাঁধাকপি দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে লোকজন ছুটে আসছেন। ২০২১ সালের নভেম্বরের শেষের দিকে এর চাষ শুরু করেন দিদার হোসেন। ৮০-৯০ দিনে কপিগুলো পরিপক্ব হয়ে বিক্রির উপযোগী হয়। কৃষক দিদার হোসেন বলেন, উপজেলায় প্রথমবারের মতো রঙিন বাঁধাকপির চাষ করেছি। ফলন বেশ ভালো হয়েছে। চাষে পোকা দমনে ফরোমন ফাঁদ ও হলুদ ট্যাপ ব্যবহার করে ৮ শতক জমিতে প্রায় ৫০০টি কপি হয়েছে। এতে খরচ হয়েছে মাত্র ৩ হাজার টাকা। বাজারে প্রতিটি কপি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা দরে পাইকারি বিক্রি করছি। এতে অন্তত ২০ হাজার টাকার কপি বিক্রি হবে। তিনি বলেন, লোকজন রঙিন জাতের কপি কিনতে বেশ আগ্রহী। অল্প টাকা খরচ করে আমি বেশ লাভ পেয়েছি। আগামীতে আরও বেশি জমিতে এ জাতের কপির চাষ করবো। স্থানীয় কৃষক রাজিব মিয়া, রাহেল মিয়া, ফয়েজ মিয়াসহ কয়েকজন বলেন, এর আগে এ এলাকায় বেগুনি বাঁধাকপি দেখা যায়নি। বীজ বপনের অল্প সময়েই সারি সারি বাঁধাকপি জমিতে ছেয়ে যায়। ওপরের পাতা ছিঁড়ে ফেললেই বের হয়ে আসে টসটসে বাঁধাকপি। সবুজের ভেতরে বেগুনি কপি এ উপজেলায় প্রথম।
দ্বিমুড়া কৃষি বøকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শামীমুল হক শামীম বলেন, উপজেলায় প্রথমবারের মতো রঙিন বাঁধাকপির চাষ হয়েছে। প্রথমবার চাষ করেই সফলতা পেয়েছেন কৃষক দিদার হোসেন। অন্য কৃষকরাও এ জাতের কপি চাষে আগ্রহ দেখাচ্ছেন। হবিগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. তমিজ উদ্দিন খান বলেন, এ বছর বাহুবলে কৃষক দিদার হোসেন বেগুনি রঙের বাঁধাকপি চাষ করেছেন। কৃষি বিভাগ থেকে তাকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হয়েছে। বাজারে ভাল চাহিদা থাকায় আগামীতে বাণিজ্যিকভাবে রঙিন জাতের এই বাঁধাকপির চাষ বাড়বে। বেগুনি বাঁধাকপি যা লাল বাঁধাকপি হিসেবে পরিচিত। এর মধ্যে ভিটামিন এ, সি এবং কেসহ বিভিন্ন ধরণের ভিটামিন রয়েছে। এতে রয়েছে মিনারেলস, পটাসিয়াম ও ম্যাঙ্গানিজ। সেই সাথে এ বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে বেটা ক্যারোটিন যা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে।

এই নিউজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন

© shaistaganjerbani.com | All rights reserved.