ঢাকা ০৭:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

নবীগঞ্জ চা শ্রমিকদের মধ্যে ৮ লাখ ৫ হাজার টাকার চেক বিতরণ

মোঃ সাগর আহমেদ নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি

১০ মাস যাবৎ নবীগঞ্জ উপজেলার বৃহত্তর ইমাম চা বাগানের শ্রমিকদের বেতন ভাতা রেশন কিছুই দেয়া হয়নি। তারা অত্যান্ত মানবেতর জীবনযাপন করছেন। ফলে (৯ জুলাই) বিকাল ৫ টায় সমাজ কল্যাণ মন্ত্রনালয়াধীন জাতীয় সমাজ কল্যাণ পরিষদের অনুদান খাতের অনুকুলে এক কালীন চেক ও আর্থিক অনুদান বিতরণ করা হয়েছে।

গত ৯ জুলাই মঙ্গলবার বিকালে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের আয়োজনে সহকারী কমিশনার ভূমি শাহিন দেলোয়ারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে চেক ও আর্থিক অনুদান বিতরন করেন, সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান চৌধুরী সেফ,ভাইস চেয়ারম্যান সাইফুল জাহান চৌধুরী, প্রেসক্লাব সভাপতি এম এ আহমদ আজাদ, ইউপি চেয়ারম্যান ইজাজুর রহমান প্রমূখ। বক্তব্য রাখেন, মৃনাল কান্তি রায়, বিদ্যুৎ, কান্তি দাশ, ফকরুল ইসলাম প্রমূখ।

অনুষ্টানে ১ শত ৬১ জন চা শ্রমিকের মধ্যে জনপ্রতি ৫ হাজার টাকা করে মোট ৮ লাখ ৫ হাজার টাকা বিতরণ করেন।

প্রধান অতিথি বলেন, আমাকে সবাই ভুলে গেলেও চা শ্রমিকরা আমাকে ভুলে নাই,কোন নেতা আমার পাশে ছিলেন না এসব সাধারণ কেটে খাওয়া মানুষ গুলো আমাকে ভোট দিয়ে এমপি বানিয়েছেন।

চা শ্রমিকদের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমি তাদের সাথে থাকবো ইনশাআল্লাহ। কোন চা শ্রমিককে না খেয়ে মরতে হবে না, আমি সব ব্যবস্থা করবো

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ১০:৩৫:৩৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪
৬ বার পড়া হয়েছে

নবীগঞ্জ চা শ্রমিকদের মধ্যে ৮ লাখ ৫ হাজার টাকার চেক বিতরণ

আপডেট সময় ১০:৩৫:৩৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪

১০ মাস যাবৎ নবীগঞ্জ উপজেলার বৃহত্তর ইমাম চা বাগানের শ্রমিকদের বেতন ভাতা রেশন কিছুই দেয়া হয়নি। তারা অত্যান্ত মানবেতর জীবনযাপন করছেন। ফলে (৯ জুলাই) বিকাল ৫ টায় সমাজ কল্যাণ মন্ত্রনালয়াধীন জাতীয় সমাজ কল্যাণ পরিষদের অনুদান খাতের অনুকুলে এক কালীন চেক ও আর্থিক অনুদান বিতরণ করা হয়েছে।

গত ৯ জুলাই মঙ্গলবার বিকালে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের আয়োজনে সহকারী কমিশনার ভূমি শাহিন দেলোয়ারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে চেক ও আর্থিক অনুদান বিতরন করেন, সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান চৌধুরী সেফ,ভাইস চেয়ারম্যান সাইফুল জাহান চৌধুরী, প্রেসক্লাব সভাপতি এম এ আহমদ আজাদ, ইউপি চেয়ারম্যান ইজাজুর রহমান প্রমূখ। বক্তব্য রাখেন, মৃনাল কান্তি রায়, বিদ্যুৎ, কান্তি দাশ, ফকরুল ইসলাম প্রমূখ।

অনুষ্টানে ১ শত ৬১ জন চা শ্রমিকের মধ্যে জনপ্রতি ৫ হাজার টাকা করে মোট ৮ লাখ ৫ হাজার টাকা বিতরণ করেন।

প্রধান অতিথি বলেন, আমাকে সবাই ভুলে গেলেও চা শ্রমিকরা আমাকে ভুলে নাই,কোন নেতা আমার পাশে ছিলেন না এসব সাধারণ কেটে খাওয়া মানুষ গুলো আমাকে ভোট দিয়ে এমপি বানিয়েছেন।

চা শ্রমিকদের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমি তাদের সাথে থাকবো ইনশাআল্লাহ। কোন চা শ্রমিককে না খেয়ে মরতে হবে না, আমি সব ব্যবস্থা করবো