ঢাকা ০৭:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

বিশ্বকাপজয়ী ভারতকে হারিয়ে সিরিজ শুরু জিম্বাবুয়ের

স্পোর্টস ডেস্ক

বিশ্বকাপ জিতে সদ্যই দেশে ফিরেছে রোহিত শর্মা বাহিনী। শুভমান গিলের নেতৃত্বে আরেকটা বহর গেছে জিম্বাবুয়ের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে। তাদের

ভারতের এ দলটাতে ‘বিশ্বকাপ জয়ী সদস্য’দের কেউ নেই! তাও রিংকু সিং, ধ্রুব জুরেল, শুভমান গিল, রিয়ান পরাগদের সমন্বয়ে গড়া একাদশটা তো আর হেলাফেলা করার মতো নয়। কিন্তু জিম্বাবুয়ে প্রথম ম্যাচে তাদের কোনো সুযোগই দেয়নি।

হারারে স্পোর্টস ক্লাবে ভারতকে ১৩ রানে হারিয়েছে খাদের কিনারে দাঁড়িয়ে থাকা জিম্বাবুয়ে। সিকান্দার রাজা বাহিনীর ১১৫ রানের জবাবে মাত্র ১০২ রান করেই অলআউট হয়েছে টিম ইন্ডিয়া। এর মাধ্যমে টি-টোয়েন্টিতে ১২ ম্যাচের জয়ের ধারা ভাঙল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। এ বছর এই ফরম্যাটে এটা তাদের প্রথম হার ।বিশ্বকাপের পর নতুন প্রজন্মের তারকাদেরই রোডেশিয়ানদের বিপক্ষে খেলতে পাঠিয়েছিল বিসিসিআই। তবে আইপিএলে পরীক্ষিত তারকারা এদিন হোঁচট খেয়েছেন জিম্বাবুয়ের মাটিতে। ১৩ রানের হারে নিজেদের যাত্রা শুরু করলো শুভমান গিলের নেতৃত্বাধীন ভারত।

মূল দল বিশ্রামে। তবুও ভারত দলে পরীক্ষিত তারকার অভাব ছিল না। শুভমান গিল বেশ অনেকটা দিন ধরেই ভারতীয় দলের প্রতিষ্ঠিত তারকা। রিঙ্কু সিং, রবি বিষ্ণোই, আভেশ খানরাও টি-টোয়েন্টি দলে নিয়মিত মুখ। এছাড়া রিয়ান পরাগ, ধ্রুব জুড়েল, ওয়াশিংটন সুন্দর কিংবা রুতুরাজ গায়কোয়াড়রা বরাবরই নিজেদের প্রমাণ করেছেন আইপিএলের মতো বড় স্টেজে।

কিন্তু জিম্বাবুয়ে যেন হারারেতে তাদের চেনাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের রূপ। একসময়ে ক্রিকেটে বড় নাম হয়ে ছিল জিম্বাবুয়ে। বর্তমানে যাদের বিশ্বকাপেও নিয়মিত দেখা যায় না। সিকান্দার রাজাদের সেই দলের কাছেই হারতে হলো ভারতকে। ১১৬ রানের টার্গেটে নেমে গিল, ওয়াশিংটন এবং আভেশ খান ছাড়া দুই অঙ্কের ঘরে যেতে পারেননি ভারতের কোন ব্যাটারই। ডাক মেরেছেন দুই মারকুটে ব্যাটার অভিষেক শর্মা এবং রিংকু।

রুতুরাজের ৭, ধ্রুব জুড়েলের ৬ আর রিয়ান পরাগের ২ রানের ইনিংস চাপ বাড়িয়েছে ভারতের। শেষদিকে আভেশ ৩ চারে ১৬ আর ওয়াশিংটনের ২৭ রান করে ভারতকে জয় এনে দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন প্রবলভাবে। কিন্তু দিনটি ছিল জিম্বাবুয়ের। তেন্দাই চাতারা আর সিকান্দার রাজার ৩ উইকেট শিকারের দিনে ভারতকে থামতে হলো জয় থেকে ১৩ রান দূরে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৯:১৮:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪
৬ বার পড়া হয়েছে

বিশ্বকাপজয়ী ভারতকে হারিয়ে সিরিজ শুরু জিম্বাবুয়ের

আপডেট সময় ০৯:১৮:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

বিশ্বকাপ জিতে সদ্যই দেশে ফিরেছে রোহিত শর্মা বাহিনী। শুভমান গিলের নেতৃত্বে আরেকটা বহর গেছে জিম্বাবুয়ের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে। তাদের

ভারতের এ দলটাতে ‘বিশ্বকাপ জয়ী সদস্য’দের কেউ নেই! তাও রিংকু সিং, ধ্রুব জুরেল, শুভমান গিল, রিয়ান পরাগদের সমন্বয়ে গড়া একাদশটা তো আর হেলাফেলা করার মতো নয়। কিন্তু জিম্বাবুয়ে প্রথম ম্যাচে তাদের কোনো সুযোগই দেয়নি।

হারারে স্পোর্টস ক্লাবে ভারতকে ১৩ রানে হারিয়েছে খাদের কিনারে দাঁড়িয়ে থাকা জিম্বাবুয়ে। সিকান্দার রাজা বাহিনীর ১১৫ রানের জবাবে মাত্র ১০২ রান করেই অলআউট হয়েছে টিম ইন্ডিয়া। এর মাধ্যমে টি-টোয়েন্টিতে ১২ ম্যাচের জয়ের ধারা ভাঙল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। এ বছর এই ফরম্যাটে এটা তাদের প্রথম হার ।বিশ্বকাপের পর নতুন প্রজন্মের তারকাদেরই রোডেশিয়ানদের বিপক্ষে খেলতে পাঠিয়েছিল বিসিসিআই। তবে আইপিএলে পরীক্ষিত তারকারা এদিন হোঁচট খেয়েছেন জিম্বাবুয়ের মাটিতে। ১৩ রানের হারে নিজেদের যাত্রা শুরু করলো শুভমান গিলের নেতৃত্বাধীন ভারত।

মূল দল বিশ্রামে। তবুও ভারত দলে পরীক্ষিত তারকার অভাব ছিল না। শুভমান গিল বেশ অনেকটা দিন ধরেই ভারতীয় দলের প্রতিষ্ঠিত তারকা। রিঙ্কু সিং, রবি বিষ্ণোই, আভেশ খানরাও টি-টোয়েন্টি দলে নিয়মিত মুখ। এছাড়া রিয়ান পরাগ, ধ্রুব জুড়েল, ওয়াশিংটন সুন্দর কিংবা রুতুরাজ গায়কোয়াড়রা বরাবরই নিজেদের প্রমাণ করেছেন আইপিএলের মতো বড় স্টেজে।

কিন্তু জিম্বাবুয়ে যেন হারারেতে তাদের চেনাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের রূপ। একসময়ে ক্রিকেটে বড় নাম হয়ে ছিল জিম্বাবুয়ে। বর্তমানে যাদের বিশ্বকাপেও নিয়মিত দেখা যায় না। সিকান্দার রাজাদের সেই দলের কাছেই হারতে হলো ভারতকে। ১১৬ রানের টার্গেটে নেমে গিল, ওয়াশিংটন এবং আভেশ খান ছাড়া দুই অঙ্কের ঘরে যেতে পারেননি ভারতের কোন ব্যাটারই। ডাক মেরেছেন দুই মারকুটে ব্যাটার অভিষেক শর্মা এবং রিংকু।

রুতুরাজের ৭, ধ্রুব জুড়েলের ৬ আর রিয়ান পরাগের ২ রানের ইনিংস চাপ বাড়িয়েছে ভারতের। শেষদিকে আভেশ ৩ চারে ১৬ আর ওয়াশিংটনের ২৭ রান করে ভারতকে জয় এনে দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন প্রবলভাবে। কিন্তু দিনটি ছিল জিম্বাবুয়ের। তেন্দাই চাতারা আর সিকান্দার রাজার ৩ উইকেট শিকারের দিনে ভারতকে থামতে হলো জয় থেকে ১৩ রান দূরে।