ঢাকা ০৬:৩৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

মহরম মাসের প্রথম প্রহরে কাবার গিলাফ পরিবর্তন

শায়েস্তাগঞ্জের বাণী ডেস্ক ,

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো আজ থেকে শুরু হয়েছে আরবী নববর্ষ । এই মাসকে আরব দেশগুলোতে বিশেষভাবে পালন করা হয়। কারণ ইসলাম ধর্মের নবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এই হিজরী বর্ষের সূচনা করেছেন। আর এই মাসের প্রথমদিন পবিত্র কাবা ঘরের গিলাপ পরিবর্তন করা হয়।

জানা যায়, নতুন গিলাফে মোড়ানো হয়েছে পবিত্র কাবাকে। শনিবার (০৬ জুলাই) পুরোনো গিলাফ সরিয়ে কাবার দেওয়াল নতুন গিলাফ পড়ানো হয়েছে। সৌদি প্রেস এজেন্সির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, বর্তমানে আরবি নতুন বছর ১৪৪৬ হিজরির প্রথম প্রহরে পবিত্র কাবার এ গিলাফ পরিবর্তন করা হয়। হিজরি নববর্ষকে স্মরণীয় করতে গত বছর থেকে এই উদ্যোগ নিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। এর আগে প্রতি বছর হজের সময় আরাফার দিন সকালে কাবার গিলাফ পরিবর্তন করা হতো। তবে গত দুই বছর হিজরি নববর্ষের প্রথম দিন কাবার গিলাফ পাল্টানো হচ্ছে।

সৌদি প্রেস এজেন্সির প্রতিবেদনে বলা হয়, কাবার গিলাফ পরিবর্তনের কাজ ১৬৯ জন দক্ষ প্রযুক্তিবিদ ও কারিগরের মাধ্যমে সম্পন্ন হয়ে থাকে। পুরনো গিলাফটি সরিয়ে নতুন গিলাফ পড়াতে তিন থেকে চার ঘণ্টা সময় লাগে। এ কাজ শুরু করা হয় কজ হাতিম থেকে। হাতিম হচ্ছে কাবা শরিফের উত্তর পার্শ্বের অর্ধবৃত্তাকার দেয়ালঘেরা স্থান।
উপার্জন অবৈধ হলে দোয়া কবুল হয় না

কাবার গিলাফ তৈরি করা হয়, কিং আব্দুল আজিজ কিসওয়াহ কমপ্লেক্সে। এটি প্রস্তুত করতে কাজ করেন ২০০-এর অধিক কর্মচারী।

এই কর্মচারীরা গিলাফ তৈরির বিভিন্ন কাজে অংশ নিয়ে থাকেন। গিলাফটি মোট ৫৬টি টুকরায় তৈরি করা হয়। আর এগুলো একেকটি তৈরি করতে সময় লেগেছে ৬০ থেকে ১২০ দিন। কাবার আবরণ প্রস্তুত করতে ব্যবহার করা হয় ১ হাজার কেজি কাঁচা রেশম।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৬:১৯:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪
৫ বার পড়া হয়েছে

মহরম মাসের প্রথম প্রহরে কাবার গিলাফ পরিবর্তন

আপডেট সময় ০৬:১৯:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো আজ থেকে শুরু হয়েছে আরবী নববর্ষ । এই মাসকে আরব দেশগুলোতে বিশেষভাবে পালন করা হয়। কারণ ইসলাম ধর্মের নবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এই হিজরী বর্ষের সূচনা করেছেন। আর এই মাসের প্রথমদিন পবিত্র কাবা ঘরের গিলাপ পরিবর্তন করা হয়।

জানা যায়, নতুন গিলাফে মোড়ানো হয়েছে পবিত্র কাবাকে। শনিবার (০৬ জুলাই) পুরোনো গিলাফ সরিয়ে কাবার দেওয়াল নতুন গিলাফ পড়ানো হয়েছে। সৌদি প্রেস এজেন্সির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, বর্তমানে আরবি নতুন বছর ১৪৪৬ হিজরির প্রথম প্রহরে পবিত্র কাবার এ গিলাফ পরিবর্তন করা হয়। হিজরি নববর্ষকে স্মরণীয় করতে গত বছর থেকে এই উদ্যোগ নিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। এর আগে প্রতি বছর হজের সময় আরাফার দিন সকালে কাবার গিলাফ পরিবর্তন করা হতো। তবে গত দুই বছর হিজরি নববর্ষের প্রথম দিন কাবার গিলাফ পাল্টানো হচ্ছে।

সৌদি প্রেস এজেন্সির প্রতিবেদনে বলা হয়, কাবার গিলাফ পরিবর্তনের কাজ ১৬৯ জন দক্ষ প্রযুক্তিবিদ ও কারিগরের মাধ্যমে সম্পন্ন হয়ে থাকে। পুরনো গিলাফটি সরিয়ে নতুন গিলাফ পড়াতে তিন থেকে চার ঘণ্টা সময় লাগে। এ কাজ শুরু করা হয় কজ হাতিম থেকে। হাতিম হচ্ছে কাবা শরিফের উত্তর পার্শ্বের অর্ধবৃত্তাকার দেয়ালঘেরা স্থান।
উপার্জন অবৈধ হলে দোয়া কবুল হয় না

কাবার গিলাফ তৈরি করা হয়, কিং আব্দুল আজিজ কিসওয়াহ কমপ্লেক্সে। এটি প্রস্তুত করতে কাজ করেন ২০০-এর অধিক কর্মচারী।

এই কর্মচারীরা গিলাফ তৈরির বিভিন্ন কাজে অংশ নিয়ে থাকেন। গিলাফটি মোট ৫৬টি টুকরায় তৈরি করা হয়। আর এগুলো একেকটি তৈরি করতে সময় লেগেছে ৬০ থেকে ১২০ দিন। কাবার আবরণ প্রস্তুত করতে ব্যবহার করা হয় ১ হাজার কেজি কাঁচা রেশম।